বাসে ট্রেনে আরাম করে বসুন

ছাপোষা কেরানী এখনো হয়ে উঠতে পারিনি। মাঝে মাঝে তেল পুড়িয়ে বাইকে চেপে আপিস যাওয়ার স্পর্ধা করে ফেলি। আবার দুদিন যেতে না যেতেই যখন টেঁকে টান পড়ে, অমনি সুড়সুড় করে বারাসাত – সাঁতরাগাছি বাসের শেষের জানলা সিটে সকাল সকাল উঠে পড়ি। ঘড়ি ধরে দুটি ঘণ্টা নষ্ট করে নিউটাউন ঘুরে সেক্টর ৫ এসে পৌছাই। ডাক্তার রায় হয়তো কোনদিন দিন ভাবেননি যে বারাসাতের মানুষ নিউটাউন ঘুরে সেক্টর ৫ এ আসবে। যাই হোক, মূল ঘটনায় আসি।

বাসের পিছনের সিট এক আজব যায়গা। ৬ জনের বসার যায়গা, তবে কাঁধে কাধ মিলিয়ে বসলে মাত্র ৫ জন ঠিক ভাবে বসা যায়। আজ সকালে বাসের পিছনের বাদিকের জানলা সিট দখল করে বসলাম। চাঁপাডালি আসতে না আসতে বাস ভরে গেল, ভরে গেলো পিছনের সিট। পাসে যিনি বসলেন, আড় চোখে দেখলাম এক সুপুরুষ কোলে ব্যাগ নিয়ে গুটিসুটি মেরে বসে আছে। মানবিক বিবেক আমার মধ্যে মাথাচাড়া দিয়ে উঠলো। আমি আমার বাম কাঁধ একটু জানলার বাইরে সরিয়ে দিলাম। কাঁধ অ্যাডজাস্ট হয়ে গেলো।

তবুও কেন জানি সুপুরুষটি সেই একই ভাবে কুঁকড়ে বসে আছেন। খেয়াল করে দেখলাম, ওনার পাসে একজন সুদর্শনা বসে আছেন। বুঝালাম, ওই কারনেই উনি এভাবে বসে আছে। বাসে ট্রেনে অনেক মানুষ কে দেখেছি এমন সুযোগের সৎ ব্যাবহার করেন এবং পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে একটু বেশিই খোলামেলা হয়ে বসেন। যাই হোক, এর পর আমি কিছু খেয়াল করলাম না। বাস ছুটছে, আর আমি এদিকে ফেসবুকে মশগুল।

বিশ্ব বাংলা গেটের ৫ মিনিট আগে সব নিরাবতা ভেঙে পাসের সুপুরুষ আমাকে জিজ্ঞাসা করলো আমার নাম ধরে, আমি ওই নামের মানুষ কি না। আমি চমকে উঠলাম। উনি আমাকে চেনার দাবী করলেন। কিন্তু আমি তো ওনাকে চিনতেই পারলাম না। আমি নির্লজ্জের মত জিজ্ঞাসা করলাম, উনি কে? উনি ওনার পরিচয় দিলেন। পরিচয় পেয়ে আমি অবাক।

বারাসাত থেকে পাসে বসে থাকা মানুষটি আমার পরিচিত, ফেসবুক বন্ধু। আমি চিনতে পারিনি, কিন্তু উনি ঠিক আমাকে চিনে ফেলেছেন। উনি আরও বললেন, বারাসাত থেকেই উনি আমাকে জিজ্ঞাসা করবেন ভাবছিলেন যে আমি, আমি কি না। হুট করে কাউকে এভাবে জিজ্ঞাসা করা ভদ্রতা হবে কিনা সেটা ভাবতে ভাবতে বিশ্ব বাংলা গেট চলে এলো।

ভাগ্যিস উনি সাহস করে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, না করলে হয়তো পাসে বসেও অপরিচিত হয়েই থেকে যেতাম। নতুন করে পরিচয় করে ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন Momit ভাই। একটা অনুরোধ, বাসে ট্রেনে আরাম করে বসুন। পাসের যাত্রীর কিছুই যায়আশে না, আপনি কষ্ট করে বসে থাকলেও।

উনি বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময় একটা ছবি তুলে রাখলাম। নীল সাদা চেক কটা শার্ট পরা মানুষটি সেই সুপুরুষ।বানান টানান ভুল থাকলে, একটু কষ্ট করে পড়ে নেবেন। কমেন্ট করে লজ্জাও দিতে পারেন।

সঞ্জয় হুমানিয়া
১১ই নভেম্বর ২০২৩, কলকাতা, ইন্ডিয়া

★ আমার লেখায় অজস্র বানান ভুল থেকে যায়, পাঠকের চোখে পড়লে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন ★

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *